হাতি’র পায়ে কি তালা লাগবে, না-কি তালা ভেঙ্গে মাঠ চষে বেড়াবে হাতি ? - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম

Post Top Ad

Friday, October 14, 2022

হাতি’র পায়ে কি তালা লাগবে, না-কি তালা ভেঙ্গে মাঠ চষে বেড়াবে হাতি ?


সোনারগাঁও দর্পণ :

আর মাত্র দুই দিন। আগামী ১৭ অক্টোবর নারায়গঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচনে তিন নাম্বার ওয়ার্ড থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম হাতি প্রতীক ও জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম ইকবাল তালা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

জেলা পরিষদ নির্বাচন হওয়ায় এ নির্বাচনে সাধারণ জনগণের ভোট দেয়ার সুযোগ না থাকলেও ভোট দিবেন উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের ১৩২ জন সদস্য। ফলে, বর্তমানে সর্বত্র আলোচনার মুল বিষয় জেলা পরিষদ নির্বাচন। শুধু উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যদের মধ্যেই নয়, জেলা পরিষদ নির্বাচনের আলোচনা এখন স্থানীয় সরকার নির্বাচন ও জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতোই আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু সর্বস্তরের সচেতন নাগরিকের কাছে।  

এদিকে, এবারের জেলা পরিষদ নির্বাচনে হাতি প্রতীকের প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মাসুমের পক্ষে মাঠে আদাজল খেয়ে নেমেছেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম এবং আবু নাঈম ইকবালের পক্ষে মাঠে নেমেছেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ ও জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এবং তার স্ত্রী ডালিয়া লিয়াকত। ফলে এবারের নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচন রূপ নিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির প্রেস্টিজ ইস্যুতে।

তাই দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই যেন নির্বাচনী উত্তেজনা তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বেশ কয়েকজন ইউপি সদস্যের সাথে কথা হয় সোনারগাঁও দর্পণ’র। এদের বেশিরভাগই আওয়ামী লীগ সমর্থিত। কেউবা ক্ষমতাশীন এ দলের নেতা। 

অপরদিকে অনেকেই আছেন জাতীয় পার্টি সমর্থিত বা জাতীয় পার্টির ছত্রছায়ায় যারা ইউপি পরিষদ সদস্য হয়েছেন। তবে, একথা নিশ্চিত যে বিগত জেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে প্রার্থীরা যত না দুশ্চিন্তামুক্ত ছিল এবার ঠিক তার উল্টো।

ফলে অনেকের কাছেই ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য জেলা পরিষদ নির্বাচনে লড়াই হবে বাঘ-আর সিংহের। অনেককে বলতে শোনাগেছে, ভোট যুদ্ধে শক্তিশালী হাতিকে কি তালা বন্ধ করতে পারবে না-কি হাতি তার সব শক্তি দিয়ে তালা ভেঙ্গে চষে বেড়াবে জেলা। অবশেষে কে হাসবে বিজয়ের হাসি। তা দেখতে অপেক্ষা করতে হবে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত। 


Post Bottom Ad