সজিব চন্দ্র থেকে ওমর ফারুক হওয়ার গল্প - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম

1


 

Post settings Labels No matching suggestions Published on 12/10/21 7:37 PM Permalink Location Options

Post Top Ad

Sunday, December 5, 2021

সজিব চন্দ্র থেকে ওমর ফারুক হওয়ার গল্প

সোনারগাঁও দর্পণ :

সজিব চন্দ্র শীল আজ থেকে ওমর ফারুক নামে পরিচিত হবেন সর্বত্র। সনাতন (হিন্দু) ধর্ম ত্যাগ করে শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করায় আজ রোববার (৫ ডিসেম্বর) থেকে তিনি এ নামেই পরিচিত হবেন। ওমর ফারুক এরআগে নারায়ণগঞ্জ কোর্টে আইনজীবি ও নোটারী পাবলিক এসকে জান্নাতুল ফেরদৌসের সহযোগিতায় বিজ্ঞ নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে আইন সম্মতভাবে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

পরে আদালত পাড়ার মসজিদের ইমাম মাওলানা হাফেজ মো. জাহিদ হাসান তাকে কলমা শাহাদাৎ পড়ান। এরসাথে কারো বিনা প্ররোচণায় আল্লাহ ও তার প্রিয় রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর প্রতি পূর্ণ বিশ্বাস ও আস্থা স্থাপন করেন বলে জানান ওমর ফারুক।


এক সময় সেলুনের কাজ করা ওমর ফারুক ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর এক প্রতিক্রিয়ায় সোনারগাঁও দর্পণ’কে জানান, তিনি বর্তমানে একজন মাছ ব্যবসায়ী। বিভিন্ন সময় মুসলামন ধর্মের লোকদের সাথে চলাফেরা করতে গিয়ে তিনি সনাতন ও ইসলাম ধর্মের রীতিনীতি,চাল-চলনসহ বিভিন্ন বিষয়ে অনেক পার্থক্য দেখে ইসলাম ধর্মকেই তার কাছে সত্যি মনে হয়। এছাড়া মসজিদে আযান দিলে মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে খুব ইচ্ছে হয়। যখন কোথাও আল কোরআন তেলওয়াত শোনেন তিনি দাড়িয়ে তা মনোযোগ দিয়ে শোনতেন। বিশেষ করে মুসলমান ও সনাতন (হিন্দু) ধর্মের মানুষ মারা যাওয়ার পর মুসলমানদের যেভাবে দাফন করা হয় তাও তার কাছে পরিপক্য রীতি বলেই মনে হয়। পরে অনেক চিন্তা-ভাবনার পর এক পর্যায় তিনি ধর্ম ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন। 


ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা ২৬ বছরের ওমর ফারুকের বাড়ি চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার মাঝিগাছা এলাকায়। তার বাবার নাম শংকর চন্দ্র শীল আর মায়ের নাম শিখা রাণী শীল। তিনি বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর এলাকায় বসবাস করেন। 


Post Bottom Ad