দেশের সব সেক্টরেই এখন আওয়ামী লীগ; নারায়ণগঞ্জ শহর একটা ডেড সিটি - শামীম ওসমান - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম


 

Post Top Ad

Saturday, November 13, 2021

দেশের সব সেক্টরেই এখন আওয়ামী লীগ; নারায়ণগঞ্জ শহর একটা ডেড সিটি - শামীম ওসমান

সোনারগাঁও দর্পণ :

বর্তমানে দেশের সব সেক্টরেই আওয়ামী লীগে ভরে গেছে। মাঝে মাঝে মনে হয় আমি (শামীম ওসমান), বাদল ভাই, চন্দনশীল আমরা আওয়ামী লীগের না, ছাত্রলীগের না। আমরা বিএনপি নয়তবা জামাত করি। শনিবার (১৩ নভেম্বর) বিকালে নারায়ণগঞ্জ রাইফেল ক্লাবে জেলার সোনারগাঁও,বন্দরসহ বিভিন্ন উপজেলার ইউনিয়ান পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের সাথে মতবিনিময় সভায় এ মন্তব্য করেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান।

মাসদাইর প্রাথমিক বিদ্যালয় একটি ভোট কেন্দ্রে জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের ওপর বিশেষ বাহিনীর লাঠিচার্জের বিষয়সহ নানা বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি এমন মন্তব্য করেন শামীম ওসমান। 

তিনি আরও বলেন, আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি, নারায়ণগঞ্জের ছাত্রলীগ সভ্য। নারায়ণগঞ্জ ছাত্র লীগের বিরুদ্ধে কেউ কোন অভিযোগ করতে পারবেনা। তারা কোন থানা, পুলিশ বা জেলা প্রশাসকের কাছে যায় না। ছাত্রলীগ নেতা সানিদের সময় থেকে এখন পর্যন্ত যারা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে একটা প্রশ্নও কেউ করতে পারেনা। 

নারায়ণগঞ্জে প্রশাসনের সহায়তায় সুষ্ঠ নির্বাচন হয়েছে। শুধু কষ্ট, একটা দাগ লেগেছে। আমি (শামীম ওসমান) এনায়েতনগর ইউনিয়নের ভোটার। নির্বাচনের শেষ সময়ে ভোট দিতে যাব। পথে জানতে পারলাম র‌্যাবের একটি বিশেষ বাহিনী মাসদাইরের প্রাথমিক বিদ্যালয় গেছে। কোন গন্ডগোল নাই। নির্বাচন প্রায় শেষ দিকে। কিছু অনিবন্ধিত পত্রিকার গাড়ি ও সেখানে দেখেছি।  

সেখানে ভুল-বোঝাবুঝি হোক আর যেটাই হোক সেখানে একটা ঘটনা সাজানো হয়েছিল। আওয়ামী লীগের সভাপতি কামালের সামনে ঘটনা সাজানো হয়েছিল। আমি আর পাঁচ মিনিট পরে গেলে এই সাজানো ঘটনা হয়তো আরো বড় আকার ধারণ করতে পারতো। আমি যাওয়ার পরে র‌্যাবের কর্মকর্তারা বুঝতে পেরেছে এটা সাজানো ঘটনা। 

এগুলো নির্বাচনে হয় কিন্তু ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াদের পায়ে ফ্র্যাকচার হয়েছে। আমরা এটা যেখানে জানানোর দরকার জানিয়েছি, জানাবো। এটা থেকে আমরা শিক্ষা নিব। গাছের পাতায় পাতায় এখন আওয়ামী লীগ। সব সেক্টর এমন আওয়ামী লীগ হয়ে গেছে। মাঝে মধ্যে আমার, খোকন সাহা, চন্দন শীলের মনে হয় আমরা আওয়ামী লীগ করি না, বিএনপি জামাত করি। 

এ সময় শামীম ওসমান বলেন, আমাদের নারায়ণগঞ্জে দুই একটি ঠুনকো ব্যক্তির জন্য সমস্যা। সোনারগাঁওয়ের নির্বাচনটা শেষ হোক। আমি সকল চেয়ারম্যান, মেম্বারদের নিয়ে বসব। কিভাবে নারায়ণগঞ্জকে আগের রূপে ফিরিয়ে আনা যায়।

আমরা যে যেই দলই করিনা কেন। শহরটি আমাদের। আল্লাহ সোবহানতায়ালা কখন ডাক দিবেন তার কাছে যাওয়ার জন্য কেউ জানিনা। তাই যতটুকু সময় বেঁচে আছি আসুন দেশের জন্য, নারায়ণগঞ্জের জন্য কিছু করে যাই।

অনুষ্ঠানে সোনারগাঁও, বন্দর, ফতুল্লাসহ বিভিন্ন উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।


Post Bottom Ad