অপহরণ পরবর্তী গণধর্ষণে সোনারগাঁওয়ে তরুণীর মৃত্যু - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম


 

Post Top Ad

Tuesday, October 12, 2021

অপহরণ পরবর্তী গণধর্ষণে সোনারগাঁওয়ে তরুণীর মৃত্যু

সোনারগাঁও দর্পণ :

প্রথমে অপহরণ। অতঃপর গণধর্ষণের ধর্ষণের পর এক তরুনীকে হত্যা করেছে বন্ধুরা। এমনই অভিযোগে করেছে চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী উপজেলার বাসিন্দা নিহত লিমা আক্তার (১৭) নামে এক পোশাককর্মীর বাবা টিটন মিয়া। মঙ্গলবার সোনারগাঁও থানায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

টিটন মিয়া অভিযোগে উল্লেখ করেন, তিনি চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী থানার আমিন কলনী এলাকার বাসিন্দা। মেয়ে লিমা আক্তার স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতো। গত ৯ অক্টোবর কারখানা থেকে কাজ শেষে রাত ৯টার দিকে লিমা বাড়ি ফেরার পথে চট্টগ্রামের রুবি গেইট এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়। পরে বিভিন্নস্থানে খুজে না  পেয়ে পরের দিন বায়েজিদ বোস্তামী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন। পরে গত সোমবার রাত ১১টার দিকে ওমর ফারুক নামে তার দুষ্পর্কের ভাতিজা লিমার বাবার মুঠোফোনে জানায় যে, লিমাকে অপহরণ করে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ঝাউচর গ্রামের সাগর মিয়ার ভাড়া বাড়ির ভাড়াটিয়া তৈয়ব হোসেন ও তার বন্ধুরা আটকে রেখে জোর করে ধর্ষণ করেছে। ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হলে স্থানীয় একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক লিমা আক্তারকে মৃত ঘোষনা করে। 

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত অভিযোগে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার বায়েরা গ্রামের জালাল মিয়ার ছেলে তৈয়ব হোসেন, পিরোজপুরের ভবানীপুর গ্রামের লাতু মিয়ার ছেলে ও তৈয়বের দুই হাসান মিয়া এবং  নোয়াখালীর হুগলি এলাকার মহিতুল্লার ছেলে আমজাদ হোসেন ওরফে রায়হানকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। 


Post Bottom Ad