পূর্ব শত্রুতার আগুনে দোকান ভূষ্মিভুত, প্রতিপক্ষের দাবি তাদের ফাঁসাতে এ অগ্নিকাণ্ড - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম

1


 

Post settings Labels No matching suggestions Published on 12/10/21 7:37 PM Permalink Location Options

Post Top Ad

Thursday, July 29, 2021

পূর্ব শত্রুতার আগুনে দোকান ভূষ্মিভুত, প্রতিপক্ষের দাবি তাদের ফাঁসাতে এ অগ্নিকাণ্ড

 

সোনারগাঁও দর্পণ :

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রায় ২০ বছর আগের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ তুলেছে এক ভুক্তভোগী পরিবার। অপরদিকে প্রতিপক্ষের দাবি, প্রতিপক্ষকে ফাঁসিয়ে মামলা থেকে বাঁচতে নিজেই নিজের দোকান পুড়িয়েছে। সোনারগাঁও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা ঘটনার পরপরই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ঋষিপাড়া এলাকায় আজ ভোরে ঘটনাটি ঘটে। খবরপেয়ে, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু, ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য শিপন সরকার ও সোনারগাঁও পূজা কমিটির সভাপতি শ্রী লোকনাথ দত্ত।

ঘটনাস্থলে গিয়ে জানাগেছে, কাফুরদী গ্রামের মৃত ইউনুস আলীর ছেলে আব্দুল মালেক (৬৫) কমপক্ষে ২০ বছর ধরে ঋষিপাড়া এলাকায় দোকান দিয়ে মুদি ব্যবসা করে আসছিল। দীর্ঘ এ সময়ে ঋষিপাড়া এলাকায় বসবাসকারী সনাতন ধর্মের লোকজনের কাছে কয়েক লাখ টাকা বাকী পরে। সে বাকী নিয়ে কয়েকজনের সাথে গত ঈদুল ফিতরের আগে দ্ব›দ্বও হয়। সে সময় তার দোকান পুড়িয়ে দেয়ার হুমকীও দেয়া হয়। বিষয়টি স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান শুনিলকে জানায় আব্দুল মালেক। শুনিল এ বিষয়ে দেনাদারদে ডেকে বিষয়টি মিমাংসা করারও আশ্বাস দেয় বলে জানায় আব্দুল মালেকের স্ত্রী মমতাজ বেগম। মমতাজ বেগমের অভিযোগ, শুনিল সে বিষয় মিমাংসা না করে বরং শুনিল গত মাস দুয়েক আগে ওই দোকানের পাশে একটি মুদি দোকান দিয়ে নিজেই ব্যবসা শুরু করে। সম্প্রতি আব্দুল মালেকের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধিকে ধর্ষণের মিথ্যা নাটক সাজিয়ে আব্দুল মালেককে এলাকা ছাড়া করেছে। সে সুযোগে রাতের আঁধারে ভোরে আগুন দিয়ে মালামাল ও ফ্রিজসহ দোকান ঘর পুড়িয়ে দেয়।


এদিকে প্রতিপক্ষের অভিযোগ, ঈদুল আজহার আগে আব্দুল মালেক প্রতিবন্ধি এক যুবতীকে ধর্ষণ করে। যা সুমন নামে এক অটোচালক দেখে ফেলে। সুমন বিষয়টি স্থানীয়দের জানালে অভিযুক্ত মালেকের ছেলে তার বন্ধুদের সহযোগিতায় সুমনকে তুলে নিয়ে পিটিয়ে আহত করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঋষিপাড়া এলাকায় ফেলে যায়। পরে ধর্ষণ ও আহত করার ঘটনায় বাবা ও ছেলের নামে মামলা হয়। পঞ্চায়েত কমিটির পক্ষ থেকে সে মামলার বাদী হয় শুনিল। এদিকে শুনিল গ্রুপের অভিযোগ, আব্দুল মালেক ওই মামলা থেকে বাঁচতে রাতের আঁধারে নিজের লোক দিয়ে দোকানে আগুন লাগিয়ে তাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। তারা জানান, কিছু দিন আগে যে দোকানে আগুন লেগেছে সে দোকানের বিদ্যুতের লাইন বিচ্ছিন্নসহ দোকানের মালামাল সরিয়ে ফেলে। আর স্থানীয়রা সেটা দেখেছে। 

আগুনে দোকান পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় সোনারগাঁও থানায় অভিযোগ করেছে ব্যবসায়ী আব্দুল মালেকের ছেলে নয়ন।

এদিকে খবর পেয়ে দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু জানান, অগ্নিকাণ্ডে দোকান পুড়ে যাওয়ার ঘটনা অবশ্যই দুঃখজনক। যদি তারা পরিষদে বিচার চায় তদন্ত সাপেক্ষে তা সুষ্ঠু সমাধানের চেষ্টা করব। আর যদি তারা আইননানুগভাবে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চায় চেয়ারম্যান হিসিবে যতটুকু সহযোগিতা প্রয়োজন আমি করতে চেষ্টা করব। 


Post Bottom Ad