রিমান্ডে সাবেক এসপি বাবুল আক্তার; বাবুলের পরকীয়াই মিতু হত্যার কারণ

সোনারগাঁও দর্পণ :

চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর মাহমুদা খানম মিতু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নতুন হওয়া একটি মামলায় নিহতের স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার (১২ মে) দুপুরে বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে ৮ জনের বিরুদ্ধে বন্দরনগরীর পাঁচলাইশ থানায় মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেনের দায়ের করা নতুন মামলায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার জাহানের আদালত এ আদেশ দেন।

এর আগে বেলা পৌনে ৩টার দিকে পুলিশের সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। শ্বশুড়ের করা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে ৭ দিনের রিমান্ড চাওয়া হলে তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বিগত পাঁচ বছর আগে চট্টগ্রামে মাহমুদা খানম মিতু হত্যার ঘটনায় করা মামলার বাদী ছিলেন তার স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তার। তদন্তে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে বাবুলকে হেফাজতে নেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এদিকে, চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলাটি তদন্তের ধারাবাহিকতায় প্রায় পাঁচ বছরের মাথায় বুধবার বাদী বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় নতুন একটি মামলা করেন মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন। মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, বাবুল আক্তারের সাথে এক এনজিওকর্মীর পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক তার মেয়ে মিতু জেনে ফেরার কারণেই মিতুকে হত্যা করা হয়েছে। 

মামলার এজাহারে মোশাররফ হোসেন আরো উল্লেখ করেন, বাবুল আক্তার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে কক্সবাজারে চাকুরি করার সময় জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার (ইউএনএইচসিআরের) এক ফিল্ড অফিসারের সাথে সে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। বিষয়টি জানতে পেরে মিতু পারিবারিকভাবে চরম বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন। পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় বাবুল মিতুকে বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন।


Post a Comment

[blogger]

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget