এমপি খোকার মদদেই ভাঙচুর, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী’র ছবি ব্যবহার না করার আহবান


সোনারগাঁও দর্পণ :


নারায়ণগঞ্জ ৩ আসনের জাতীয় পার্টির এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা গত ৩ এপ্রিল রয়েল রিসোর্টের ঘটনা পরবর্তী আওয়ামী লীগের কার্যালয়, যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বাড়ি,গাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা এবং ভাঙচুরের ঘটনায় পেছন থেকে মদদ দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন সোনারগাঁও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল (১২ এপ্রিল) সোমবার সোনারগাঁও উপজেলা অডিটোরিয়ামে আয়োজিত উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির এক বর্ধিত সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মোহাম্মদ বাদলের উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগের নেতারা এ অভিযোগ করেন। এ সময় এডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ভবিষ্যতে সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকাকে তার কোন রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের পোষ্টার, ব্যানার ও ফেস্টুনে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ছবি ব্যবহার না করার আহবান জানান। ৩ এপ্রিলে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু সোমবার রাতে মোবাইলে ‘সোনারগাঁও দর্পণ’কে এসব কথা জানান। 

নান্নু আরো জানান, ৩ এপ্রিল স্থানীয় জাতীয় পার্টির সভা চলছিল। মামুনুল হক অবরুদ্ধের ঘটনা স্যোসাল মিডিয়ার মাধ্যমে খবর পেয়ে এমপি খোকার সাথে থাকা নব্য জাতীয় পার্টির সদস্যদের (আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠন ও বিএনপি-জামায়াত থেকে স্বার্থ উদ্ধারে যোগ দেয়া)’কে হেফাজতের সাথে মিলে তাণ্ডব চালিয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বাড়ি-ঘর, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ভাঙচুরে লেলিয়ে দিতে মদদ দিয়েছেন যা আওয়ামী লীগের নেতারা বলেছেন বলে দাবি করেন তিনি।

এ সময় সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগের নেতারা ‘ছি...ছি .... ছি.....’ বলে ধিক্কার এবং মদদের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান। এ সময় নারায়ণগঞ্জ ৩ আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকাকে আওয়ামী লীগার হওয়ার চেষ্টা না করে, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী’র জন্য লোক দেখানো স্বার্থ উদ্ধারের মায়াকান্না না কারার জন্যও আহবান জানান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।


Post a Comment

[blogger]

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget