1. tarunbeghi@gmail.com : admin :
  2. mamun.sp10@gmail.com : Mokkaram Mamun : Mokkaram Mamun
  3. babuibasa@gmail.com : sd :
সোনারগাঁওয়ে গুটিকয়েক স্বার্থান্বেসী ব্যক্তির কারণে হাজারো মানুষের ভোগান্তি, বদনাম কুড়াচ্ছে প্রশাসন ! - সোনারগাঁও দর্পণ
বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৬:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সোনারগাঁওয়ে আইনজীবির বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা ফেসবুক স্ট্যাটাসই যেন দায়িত্ব শেষ না হয় পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে পুলিশ বদ্ধ পরিকর – পুলিশ সুপার শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের সুনাম যেন নষ্ট না হয় – এরফান হোসেন দ্বীপ চাঁদাবাজদের বিষয়ে সোনারগাঁওবাসীকে সতর্ক করে ইউএনও’র ফেসবুক স্ট্যাটাস সোনারগাঁওয়ে নগদ ৪ লাখ টাকাসহ লোড ব্যবসায়ীর প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল ছিনতাই সোনারগাঁওয়ে শিশু ধর্ষণ, গ্রেফতার – ১ সোনারগাঁওয়ে শিশু খাদ্যের প্রতিষ্ঠানকে তিন লাখ টাকা জরিমানা, ৫০ লাখ টাকার মালামাল ধ্বংস সোনারগাঁওয়ের শ্রমিকের কষ্টার্জিত টাকা নড়াইল থেকে উদ্ধার মদনপুরে ছাত্র সমাজের উদ্যোগে ধর্ষণ বিরোধী মানববন্ধন

ছবি ঘর

সোনারগাঁওয়ে গুটিকয়েক স্বার্থান্বেসী ব্যক্তির কারণে হাজারো মানুষের ভোগান্তি, বদনাম কুড়াচ্ছে প্রশাসন !

  • সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

মোকাররম মামুন :

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে প্রাচীন রাজধানী সোনারগাঁওয়ের ঐতিহ্য অক্ষুন্ন। এ জনপদটিতে প্রতিনিয়ত বাড়ছে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। যার অন্যতম কারণ একাধিক শিল্পনগরী এবং রাজধানীর নিকটবতী অঞ্চলের অবস্থান।
অঞ্চলটির প্রশাসনিক প্রায় সকল কাজ উদ্ববগঞ্জ এলাকায় হওয়া সত্তে¡ও উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের চৌরাস্তা এলাকাটি সোনারগাঁওয়ের প্রাণকেন্দ্র হিসেবেই বিবেচিত। নিত্য প্রয়োজনে এই প্রাণকেন্দ্রে আসা স্থানীয় বাসিন্দা, ব্যবসায়ী,পর্যটকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজনকে প্রতিদিনই পরতে হয় যানজট নামক দুর্ভোগে। অথচ, এই স্থানটি দিয়ে প্রতিদিন একাধিকবার যাতায়াত করেন পুলিশ ও সিভিল প্রশাসনের লোকজন। কখনো কখনো যানজট এতটাই তীব্র থাকে যে, গুটিকয়েক কদমের মাত্র মিনিট দুই-একের পথ পেরুতে হয় ১০ থেকে ২০ মিনিটে, কখনও এরচেয়েও বেশি সময়ে। অনেকের মতে, হাতেগোনা দুই-চার জন স্বার্থান্বেসী ব্যক্তির অতিরিক্ত অর্থালোভই দুর্ভোগের (যানজট) প্রধান কারন। এছাড়া, নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা থেকে বিভিন্ন যানবাহনকে চলাচলের অনুমতি প্রদান, কখনও আবার অনুমতি ছাড়াই সড়কে যানবাহন নামানোর ফলে সড়কে যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং সে সকল বিষয়ে প্রশাসনের ‘গাঁ’ ছাড়া ভাব, রাস্তার পাশে বড়াকারের যানবাহন রেখে মালামাল খালাস এবং যত্রতত্র যানবাহন রেখে দেয়া যানজটের কারণ।
তবে অভিযোগ রয়েছে, সড়কের পাশে রিক্সা, অটোরিক্সা,সিএনজি রেখে সরু সড়ককে আরও সরু বানিয়ে সড়কে কৃত্তিম যানজট সৃষ্টি করছে একশ্রেণির স্বার্থান্বেসী মহলের অর্থালোভী গুটি কয়েক লোক। সে সকল স্বার্থান্বেসী ব্যক্তিরা মহাসড়কের দুই পাশে বিভিন্ন যানবাহন রেখে কিছু লোকজনকে মাসিক বেতন বা কমিশন দিয়ে বিভিন্ন যানবাহন থেকে বিভিন্ন হারে টাকা (চাঁদা) তুলে থাকেন। স্বার্থান্বেসী অর্থলোভী যে সকল ব্যক্তিদের নাম জানাযায় তারমধ্যে জনপ্রতিনিধি ও তাদের স্বজন, বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাদের সাথে কিছু হোমড়া-চোমড়াদের নামও উঠে আসে। পাশাপাশি পুলিশ (হাইওয়ে এবং থানা) ও সিভিল প্রশাসনের অসৎ কতিপয় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নামযে আসেনা সেটি কিন্তু নয়! অভিযোগ রয়েছে, পুলিশ ও সিভিল প্রশাসনের কিছু অসৎ ব্যক্তির সাথে স্বার্থান্বেসী মহলের যোগসাজেস রয়েছে। যার সমন্বয়কারী হিসেবে আবার বিশেষ পেশার দুই-একজন ব্যক্তির নামও জানাগেছে। যদিও পুলিশ ও সিভিল প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এর (মাসোয়ারা) ভাগ কতটুকু পান বা আদৌ পান কি-না, না-কি ওই বিশেষ পেশার ব্যক্তি ও প্রশাসনের অসৎ ব্যক্তিরাই ফায়দা লুটছে, সেটি তারাই ভাল জানেন! তবে সাধারণ মানুষের প্রশ্ন, প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা প্রতিদিন এ পথ দিয়ে যাতায়াতের সময় যানজটের শিকার হোন, তাহলে যানজট নিরসনের বিষয়ে কেন কার্যত পদক্ষেপ গ্রহণ করেননা।
অবশ্য, এ ধরণের প্রতিবেদনের জের ইতিপূর্বেও দিয়েছেন স্থানীয় সাধারণ দোকানী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। তাদের ওপর চালানো হয়েছে উচ্ছেদ নামক ট্রীমরোলার। লোক দেখানো ওই উচ্ছেদে সর্বশান্ত ও ঋণগ্রস্ত হয়েছে সাধারণ ব্যবসায়ীরা।
চৌরাস্তা ও এর আশপাশের এলাকায় নগরায়নের নামে যে সকল বহুতল আবাসিক বা বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণ হচ্ছে তার বেশিরভাগই হচ্ছে ভবন নির্মাণ আইনের নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে। তারপরও তাদের ভবনগুলোর সামনে যতটুকুই খালি জায়গা অবশিষ্ট থাকে সেগুলোকেও ক্ষুদ্র (মুচি,আচার বিক্রেতা,বিকাশ বা লোডের দোকান,বিভিন্ন ফল বিক্রেতা বা গার্মেন্ট আইটেম বিক্রেতা) ব্যবসায়ীদের কাছে দৈনিক বা মাসিক ভাড়া দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা।
তবে সবকিছুর পরও সাধারণ মানুষের দাবি, চৌরাস্তা থেকে সোনারগাঁও থানা রোড এবং সোনারগাঁও সরকারী কলেজ (সাবেক সোনারগাঁও ডিগ্রী কলেজ) রোডটিকে যানজট মুক্ত রেখে জনগণের চলাচলের পথকে সুগম করার পাশাপাশি তাদের ওপর যে অভিযোগ!এর কালিমা লেপন করা হচ্ছে তা মিথ্যা প্রমাণিত করার।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

One response to “সোনারগাঁওয়ে গুটিকয়েক স্বার্থান্বেসী ব্যক্তির কারণে হাজারো মানুষের ভোগান্তি, বদনাম কুড়াচ্ছে প্রশাসন !”

  1. দোস্ত, চমৎকার নিউজ! আশা করি প্রশাসনের টনক নড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews