ভালো করে জেনে নিন, কিভাবে ভোট দিবেন ‘ইভিএম’ এ - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম

Post Top Ad

Monday, June 13, 2022

ভালো করে জেনে নিন, কিভাবে ভোট দিবেন ‘ইভিএম’ এ


সোনারগাঁও দর্পণ :

আর মাত্র একদিন পরই মোগরাপাড়া ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। এ নির্বাচনে ইউনিয়নবাসী প্রথমবারের মতো ভোট প্রদান করবেন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এর মাধ্যমে। অনেক শিক্ষিত বা সচেতনরাই জানিনা কিভাবে ভোট দিতে হয় ইভিএম মেশিনে। নির্বাচন অফিস থেকেও তেমন কোন পূর্ব আয়োজন করেননি ভোট প্রদান সম্পর্কে। ইভিএম’এ ভোট দিতে একজন অভিজ্ঞ ব্যক্তির সর্বোচ্চ ১৪ সেকেন্ড সময় লাগে বলে নির্বাচন অফিস সংশ্লিষ্টা বলে থাকেন। আর যদি অনভিজ্ঞ হয় তাহলে কত সময় লাগতে পারে তা ওই ব্যক্তির ওপরই নির্ভর করে। তাই আপনার পছন্দের প্রার্থীকে আপনার মূল্যবান ভোট দিয়ে যেন অপর ভোটারকে দ্রুত ভোট দেয়ার সুযোগ করে দেয়া যায়, সে কারণে ইভিএম’এ কিভাবে ভোট দিতে হয় তা জানা জরুরী।



কিভাবে ভোট দিবেন এ মেশিনে 

ইভিএমের মূলত অংশ তিনটি। কন্ট্রোল ইউনিট (ডেটা যাচাই করার যন্ত্র) ব্যালট যন্ত্র এবং মনিটর। ডেটা যাচাই যন্ত্রটি কাজ শুরু করবে দুটি অ্যাকসেস কার্ডের মাধ্যমে। এর একটি থাকবে প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছে, অন্যটি সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছে। প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের কাছে একটি পিন নম্বর থাকবে, যেটি ব্যবহারের মাধ্যমে একজন ভোটারের তথ্য জানবেন তিনি। মেশিনটির একটি অংশে  ভোটারের আঙুলের ছাপ দেওয়ার জায়গা আছে। সেখানে আঙুলের ছাপ দিলে ভোটারের পরিচয় নিশ্চিত হবে যে যিনি ভোট দিতে এসেছেন, তিনি আসলেই প্রকৃত ভোটার কি-না। 

আঙুলের ছাপ ছাড়াও জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়েও  ভোটারের পরিচয় জানা যাবে। ভোটারের পরিচয় নিশ্চিত হলে তা মনিটরে দেখা যাবে। মনিটরটি ভোটকক্ষের এমন স্থানে বসানো বা রাখা হবে, যেখান থেকে ভোটারের পরিচয় সম্পর্কে রিটার্নিং কর্মকর্তা, ওই কক্ষে থাকা পোলিং এজেন্ট ও  ভোটার নিজেও দেখতে পারবেন। ভোটার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেলে ভোটারকে ভোট দেয়ার গোপন কক্ষে পাঠানো হবে।  


গোপন কক্ষে কি করবেন

যে কক্ষে আপনি ভোট দিবেন সেখানে আপনার সামনে চেয়ারম্যান, মেম্বার ও সংরক্ষিত নারী সদস্যদের ভোট দেওয়ার জন্য তিনটি আলাদা ব্যালট যন্ত্র থাকবে। ভোটারের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার সাথে সাথে ব্যালট যন্ত্রের মনিটর স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ শুরু করবে। সেখানে প্রার্থীদের নাম এবং প্রতীক দেখা যাবে। একটি ভোট দেয়া শেষ এই যন্ত্র নিষ্ক্রিয় থাকবে।

কিভাবে ভোট দিনেব

ব্যালট যন্ত্রে প্রত্যেক প্রার্থীর নাম ও প্রতীকের পাশে আলাদা সাদা বোতাম থাকবে। সাদা বোতামে চাপ দিলে যন্ত্র থেকে স্বয়ংক্রিয় আওয়াজে বলবে, ‘আপনার পছন্দের প্রতীক নিশ্চিত হলে সবুজ বাটন চাপুন’। এরপর নিচে থাকা সবুজ  বোতাম চেপে ভোট প্রদান নিশ্চিত করতে হবে।



আপনি ভুল বশত পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেননি কোন সমস্যা নাই। ঘাবড়াবেন না। 

কোনো ভোটার যদি ভুলে অন্য প্রতীকের পাশের বোতামে চাপ দিয়ে ফেলেন, তাহলে সবুজ বোতাম না চেপে তৎক্ষণাৎ সঠিক বোতাম চাপতে পারবেন বা লাল বোতাম টিপে নিবেন। এভাবে নিশ্চিত হওয়ার আগে দুবার বদলানোর সুযোগ পাওয়া যাবে। তবে তৃতীয়বার যে প্রতীকের পাশের বোতাম চাপা হবে, ভোট সেই প্রার্থীকেই দেওয়া হয়েছে বলে ধরে নেওয়া হবে,। তাই ভুল তিনবার করা যাবেনা।



ভোটার যখন ভোট দিতে গোপন কক্ষে থাকবেন, তখন বাইরের মনিটরে লেখা থাকবে, ‘ভোট গ্রহণ চলছে’। ভোট দেওয়া সম্পন্ন হলে বাইরের মনিটরে, মোট ভোটারের সংখ্যা এবং যতজন ভোট দিয়েছেন, তাঁদের সংখ্যা দেখা যাবে। ফলে এর বাইরে কোনো ভোট এলে পোলিং এজেন্ট সাথে সাথেই বুঝতে পারবেন।

আপনি কি দ্বিতীয়বার ভোট দিতে পারবেন ?

একই ভোটার যদি আবার ভোট দিতে আসেন, তবে যন্ত্র জানাবে যে তাঁর ভোটটি ইতিমধ্যে দেওয়া হয়েছে এবং জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টায় ভোটারকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে সোপর্দ করা হবে। মনে রাখতে হবে যে, ‘ইভিএম’ এ আপনার ভোট অন্যজনের দেয়ার কোন সুযোগ নেই।  


Post Bottom Ad