২ পরিবহন শ্রমিকসহ ডাকাত আখ্যা দিয়ে ৩জনকে পিটিয়ে হত্যা - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম

Post Top Ad

Thursday, January 13, 2022

২ পরিবহন শ্রমিকসহ ডাকাত আখ্যা দিয়ে ৩জনকে পিটিয়ে হত্যা




সোনারগাঁও দর্পণ :

সোনারগাঁওয়ের দুই পরিবহন শ্রমিকসহ তিনজনকে ডাকাত আখ্যা দিয়ে আড়াইহাজারে গণপিটুনিতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ করেন পরিবহন শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যরা। বুধবার দিবাগত ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে আড়াইহাজার উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের ইলুমদী এলাকায় মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত দুই পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে মফিজুল ইসলাম জামপুর ইউনিয়নের বস্তল এলাকার সিরাজ মিয়ার ছেলে এবং একই এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে জহিরুল ইসলাম। অপরজন নরসিংদী জেলার চন্ডি মাধবদি’র মোসলেম এর ছেলে নবী হোসেন।

আড়াইহাজারের স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার ভোর (বুধবার দিবাগত ভোর) সাড়ে ৪ টার দিকে স্থানীয় জনতা ডাকাত সন্দেহে তিন যুবককে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুই’জনের মরদেহ উদ্ধার করে এবং একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপরদিকে, সোনারগাঁও উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বস্তল এলাকার সিরাজ ও হাবিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যরা জানায়, তাদের সন্তান মফিজুল ও জহিরুল প্রতিদিন কারখানার শ্রমিকদের নিয়ে আসতে আড়াইহাজার যেতো। প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার ভোর আনুমানিক সাড়ে ৪ টার দিকে বস্তল এলাকা থেকে লেগুনা গাড়ী নিয়ে আড়াইহাজার থানার হাইজাদী ইউনিয়নের ইলুমদী এলাকা থেকে শ্রমিক নিয়ে আসতে বের হয়ে আর বাড়ী ফিরে আসেনি। পরে লোক মারফত খবর পায় যে, তাদের সন্তানদেরকে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করেছে আড়াইহাজারের স্থানীয় দুর্বৃত্তরা। 

এদিকে, এ ঘটনা অমানবিক উল্লেখ করে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে জামপুর এলাকাবাসী। মানববন্ধনে অংশ নেয়া গ্রামবাসী জানায়, যাদেরকে ডাকাত আখ্যা দিয়ে হত্যা করেছে তারা স্থানীয়ভাবে ভাল চরিত্রের এবং খেটে খাওয়া ভালো লোক হিসেবে এলাকায় পরিচিত। তারা কোনভাবেই ডাকাতির মতো ঘৃণিতকাজে জড়িত থাকতে পারেনা বলে গ্রামবাসী দাবি করে। তাই হত্যাকারীদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান মানববন্ধনে অংশ নেয়া ব্যক্তিরা।

কর্মক্ষম নিজ সন্তানদের এমন মর্মান্তিক অকাল মৃত্যু কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেনা পরিবার। নিহতদের মা-বাবা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা কিছুক্ষণ পরপরই নিহতদের নাম মুখে নিয়ে মুর্ছে যেতে দেখা গেছে। পরিবারের সদস্যদের আহাজারিতে স্থানীয় পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান জানান, ভোরে ইলুমদী এলাকায় ডাকাত সন্দেহে তিন জনকে হত্যা করে রাস্তার পাশে ফেলে রাখার খবর শুনে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুইজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। অপরজনের পরিচয় শনাক্তে কাজ অব্যাহত রয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।


Post Bottom Ad