জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের গাফিলতিতে পানি বঞ্চিত সোনারগাঁওয়ের কয়েক হাজার মানুষ - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম


 

Post Top Ad

Tuesday, June 29, 2021

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের গাফিলতিতে পানি বঞ্চিত সোনারগাঁওয়ের কয়েক হাজার মানুষ

সোনারগাঁও দর্পণ : 

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাধীন বাংলাদেশ ওয়াটার সাপ্লাই ও স্যানিটেশন প্রকল্পের নিয়োজিত ঠিকাদারের গাফিলতিতে ৫দিন ধরে তীব্র সুপেয় পানি সংকটে রয়েছে সোনারগাঁওয়ের মোগরাপাড়া ইউনিয়নের কমপক্ষে ১০ গ্রামের ৩ হাজার পরিবার। পানি বঞ্চিত পরিবারগুলোর নাভিশ্বাস অবস্থা। রান্না-বান্না, টয়লেট, গোসল এমনকি কাপড় ধুতে অনেকে পানি কিনে ব্যবহার করছেন। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া হওয়ায় পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ বিদ্যুৎ লাইন কেটে দেয়ায় পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাদের এ দুরবস্থা বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। এদিকে, গ্রাহকরা প্রকল্পে নিয়োজিতদের ফোন করলেও ফোন বন্ধ পান আবার কারো মোবাইলে রিং হলেও রিসিভ করেন না বলে জানান কেউ কেউ।

খুলিয়াপাড়া, দমদমা ও বিশেষখানা গ্রামের বেশ কয়েকজন গ্রাহক জানান, সোনারগাঁও সরকারি কলেজের শেষ অংশে এবং কৃষি কোয়ার্টারের পাশে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাধীন বাংলাদেশ ওয়াটার সাপ্লাই ও স্যানিটেশন প্রকল্পের “মোগরাপাড়া পাইপ লাইন পানি সরবরাহ প্রকল্প” থেকে গত ২৫ জুন সকাল থেকেই তাদের পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। পানি না থাকায় রান্না করা, কাপড় ধোয়া, ঘর মোছাসহ পরিবারের দৈনন্দিন কোন কাজই করতে পারছেনা। সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে পর্যাপ্ত পানি না থাকায় চাহিদামতো পানি না পান করা এবং টয়লেট শেষে পর্যাপ্ত পানি ঢালতে না পারায় দুর্গন্ধে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। পাইপ লাইনে পানি সংযোগ নেয়ার পর যাদের মটর বা বাড়িতে থাকা টিউবয়েল অকার্যকর হয়ে গেছে তারা সমস্যায় পড়েছেন সবচেয়ে বেশি।

এ ব্যাপারে গত সোমবার প্রকল্পের ম্যানেজার আলআমিনের মোবাইলে বহুবার কল করেও যোগাযোগে করা সম্ভব হয়নি। এমনকি এই প্রকল্পের পরিচালক সাইফুল ইসলামের মোবাইল ফোনটিও বন্ধ রয়েছে।

এর সমস্যার সমাধানের বিষয়ে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও “মোগরাপাড়া পাইপ লাইন পানি সরবরাহ প্রকল্প”র সদস্য সিপন সরকার জানান, গ্রাহকেরা ঠিক মতো পানির বিল পরিশোধ না করায় প্রায় ১ লাখ টাকা ৭৫ হাজার টাকা বিল বকেয়া থাকায় পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। তবে, আগামীকাল বুধবারের মধ্যে বিল পরিশোধের মাধ্যমে কিভাবে পানি সরবরাহ করা যায় সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আশাকরি কালকের মধ্যেই পানি সরবরাহ করা যাবে।


Post Bottom Ad