সোনারগাঁওয়ে ছিনতাইয়ের কবলে কর্ণেল, লুট হওয়া পণ্য উদ্ধারে আলটিমেটাম - সোনারগাঁও দর্পণ

শিরোনাম

Post Top Ad

Thursday, June 3, 2021

সোনারগাঁওয়ে ছিনতাইয়ের কবলে কর্ণেল, লুট হওয়া পণ্য উদ্ধারে আলটিমেটাম

সোনারগাঁও দর্পণ :

সড়কে কলাগাছ ফেলে এক কর্ণেল (সোর্সের তথ্যানুযায়ী) এর কাছ থেকে সর্বস্ব লুট করে নিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত প্রায় ১টার দিকে মোগরাপাড়া-মঙ্গলেরগাঁও সড়কের পুলিশ ফাঁড়ির অদূরে ছিনতাইয়ের এ ঘটনা ঘটে। ছিনতাই হওয়া জিনিসপত্র উদ্ধারে শুক্রবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত থানা পুলিশকে সময় বেধে দিয়েছেন বলেও সূত্র জানায়। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মঙ্গলের গাঁও এলাকার একটি সূত্র জানায়, ছিনতাইয়ের কবলে পরা ওই কর্ণেল হোসেনপুর ইউনিয়নের চৌধুরীগাঁও গ্রামের সন্তান। শুক্রবার পারিবারিক একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিনি বাড়ি যাওয়ার সময় পিরোজপুর ইউনিয়নের মোগরাপাড়া থেকে মঙ্গলেরগাঁও যেতে সড়কের পুলিশ ফাঁড়ির অদূরে কর্ণেলকে বহনকারী গাড়িটি মঙ্গলেরগাঁও ব্রীজের আগে মোড়ে পৌছালে সড়কে কলাগাছ দেখে গাড়ি থামায়। এ সময় কয়েকজন যুবক কর্ণেলকে অস্ত্র ঠেকিয়ে হাত উপরে উঠাতে বললে কর্ণেল দুই হাত উপরে তুলে। এ সময় ছিনতাইকারীরা তার কাছ থেকে মানিব্যাগ ও দুইটি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে ছিনতাইয়ের কবলে পরা ওই কর্ণেল মঙ্গলের গাঁও বাজারে গিয়ে থানা পুলিশকে ফোন দিলে সোনারগাঁও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। 

এ সময় কর্নেল তার পরিচয় দিয়ে তার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনা জানানোর পর পুলিশ ফাঁড়ি ছেড়ে পুলিশের অবস্থানের কথা জানতে চাইলে পুলিশ কাইকারটেক ব্রীজে তাদের অবস্থান ছিল বলে জানায়। এ সময় কর্ণেল তার বাড়ির কাছে ছিনতাই হওয়াকে দুঃখজনক উল্লেখ করে এই ছিনতাইয়ের পেছনে পুলিশের দায়িত্বপালনে অবহেলাকে দায়ি করেন এবং শুক্রবার বিকাল ৫টার মধ্যে ছিনতাই হওয়া পণ্য উদ্ধারের আহবান জানান। আর তা না হলে থানায় অভিযোগ করবেন বলে সতর্ক করেন। 

এ বেপারে সোনারগাঁও থানারা অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাফিজুর রহমান কে ফোন করলে তিনি ব্যাস্ত আছেন বলে জানান এবং এ বিষয়ে  পরে যোগাযোগ করতে বলেন, পরে থানার (সেকেন্ডে অফিসার) ইয়াউর রহমান কে ফোন দিলে তিনি জানান, তিনি ছুটিতে ছিলেন এ বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না।

Post Bottom Ad